মিয়ানমারে মার্কিন সাংবাদিককে ১১ বছরের কারাদণ্ড

যুক্তরাষ্ট্রের সাংবাদিক ড্যানি ফেনস্টারের আইনজীবী শুক্রবার বলেছেন যে, তার মক্কেলকে মিয়ানমারের একটি সামরিক আদালত ১১ বছরের কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে।সিএনএন এর খবরে বলা হয়- মিশিগানের ডেট্রয়েটের বাসিন্দা ৩৭ বছর বয়সী ড্যানি ফেনস্টারকে পাঁচ মাসেরও বেশি সময় ধরে মিয়ানমারে আটকে রাখা হয়েছে। ২৪ মে গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকে তাকে জামিন দিতে অস্বীকার করা হয়েছে এবং দেশটির বৃহত্তম শহর ইয়াঙ্গুনের ইনসেইন কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে।শুক্রবার আদালতের শুনানিতে আইনজীবী থান জাও অং বলেন, ফেনস্টারকে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী তিনটি অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত করেছে।ফেব্রুয়ারি মাস থেকে এক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিয়ানমারের নিয়ন্ত্রণ সেনাবাহিনী নিয়ে নিয়েছে। ড্যানি ফেনস্টার অভ্যুত্থানের পর থেকে আটক প্রায় ১০০ জন সাংবাদিকদের মধ্যে একজন। প্রায় ৩০ জন সাংবাদিক কারাগারে রয়েছেন।বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়- তিনি অভিবাসন আইন লঙ্ঘন, বেআইনি সংঘ ও মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে ভিন্নমত উৎসাহিত করার অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন।উল্লেখ্য, ড্যানি ‘ফ্রন্টিয়ার মিয়ানমার’ নামের মিয়ানমারভিত্তিক একটি সংবাদমাধ্যমের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ছিলেন। মে মাসে তাকে ইয়াঙ্গুন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আটক করা হয়। এর আগে ‘মিয়ানমার নাও’ নামের আরেকটি গণমাধ্যমের হয়ে কাজ করতেন ড্যানি। গত ১ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে সামরিক অভ্যুত্থানের পর থেকে জান্তার সমালোচনা করে আসছে গণমাধ্যমটি। চলতি সপ্তাহেই ড্যানির বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদ ও রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগও আনে মিয়ানমার সরকার। এই অভিযোগের বিচারকাজ ১৬ নভেম্বর শুরু হবে। ওই অভিযোগে দোষী সাব্যস্ত হলে তার সর্বোচ্চ যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হতে পারে।

Advertisement