ম্যাচ জিততে বাংলাদেশের চাই ১৪১ রান

ওমান একাদশের বিপক্ষে দুর্দান্ত খেলার পর দুটি প্রস্তুতি ম্যাচেই হতাশাজনক পারফরম্যান্স করে টাইগাররা। তবে হতাশাকে পেছনে ফেলে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশনটা জয় দিয়ে শুরু করার জন্য ১৪১ রানের লক্ষ্য পেয়েছে বাংলাদেশ। মাহেদী-সাকিব-মুস্তাফিজের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৪০ রান তুলতে সক্ষম হয় স্কটল্যান্ড।এর আগে স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে টস জিতে আগে বোলিং করতে নেমে ইনিংসের তৃতীয় ওভারেই দুর্দান্ত এক ইয়র্কারে প্রতিপক্ষ অধিনায়ককে ঘায়েল করেন সাইফুদ্দিন। যাতে মাত্র পাঁচ রানেই প্রথম উইকেট হারায় স্কটল্যান্ড। ৭ বল খেলা দলীয় অধিনায়ক কাইল কোয়েৎজার ফেরেন শূন্য রানেই।এরপর ম্যাথিউ ক্রসকে নিয়ে ৪০ রানের জুটি গড়েন ওপেনার জর্জ মুনসে। বিপজ্জনক হয়ে ওঠা এই জুটি ভাঙতে সাকিব-মাহেদীকে আক্রমণে আনেন রিয়াদ। কাজ হয় তাতেই। সাকিব এসে পাঁচ রান দিলেও মাত্র তিন রান দিয়ে দুজনকেই তুলে নেন মাহেদী।যাতে অষ্টম ওভারে ৪৬ রানেই তিন উইকেট হারিয়ে বসে স্কটল্যান্ড। দুটি করে ছক্কা-চার হাঁকিয়ে ২৩ বলে ২৯ করে বিপজ্জনক ব্যাটার মুনসে ফেরেন মাহেদীর ঘূর্ণিতে বোল্ড হয়ে। এর আগে ১৭ বলে ১১ রান করে লেগ বিফোরের শিকার হন ক্রস।

এরপর নিজের তৃতীয় ওভারে এসে আরেকবার স্কটিশদের জোড়া উইকেট তুলে নেন সাকিব আল হাসান। এই দুই স্পিনারের মায়াবী ঘূর্ণিতে যারপরনাই বিপর্যস্ত হয়ে পড়ে স্কটল্যান্ড। ১২ ওভারে ৫৩ রান তুলতেই ৬ উইকেট হারিয়ে ফেলে দলটি।এমন অবস্থায় মার্ক ওয়াটকে সঙ্গী করে মাত্র ৩৪ বলে ৫১ রানের ঝড়ো জুটি গড়েন ক্রিস গ্রিভান্স। তবে ১৮তম ওভারের প্রথম বলে ওয়াটকে সৌম্যের তালুবন্দি করে টাইগারদের বোলিং ও ফিল্ডিং ব্যর্থতায় মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে ওঠা এই জুটি ভাঙেন তাসকিন আহমেদ। ১৭ বলে ২২ রান করে ফেরেন মার্ক।তবে তখনও মারকুটে ব্যাটিং করে, চার-ছক্কা হাঁকিয়ে বোলারদের অতিষ্ঠ করে তুলতে ব্যস্ত ছিলেন গ্রিভান্স। চল্লিশ ছাড়িয়ে ছুটছিলেন অর্ধশতকের লক্ষ্যেই। তবে তাঁর শে লক্ষ্য পূরণ হয় শেষ ওভারে মুস্তাফিজের জোড়া আঘাতে।২৮ বলে ৪৫ করা গ্রিভান্সকে সাকিবের বিশ্বস্ত তালুতে বন্দি করে উইকেটের মুখ খোলা মুস্তাফিজ পরের বলেই দুর্দান্ত এক ইয়র্কারে জস ডেভিকে বোল্ড করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনাও জাগান। তবে তা না হয়ে বরং শেষ বলে ছক্কা খেয়ে বসেন ফিজ। যাতে শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেট হারিয়েই ১৪০ রান জমা করে স্কটিশরা।

স্কটল্যান্ড একাদশ: কাইল কোয়েৎজার (অধিনায়ক), জর্জ মুনসে, ম্যাথিউ ক্রস (কিপার), রিচি বেরিংটন, ক্যালাম ম্যাকলিওড, মাইকেল লিস্ক, ক্রিস গ্রীভস, মার্ক ওয়াট, জশ ডেভি, সাফিয়ান শরীফ, ব্র্যাড গম।

বাংলাদেশ একাদশ: লিটন দাস, সৌম্য সরকার, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক, আফিফ হোসাইন, নুরুল হাসান (কিপার), মাহেদী হাসান, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান।

Advertisement