রংপুরে বড় বোনের লাশ ঝুলছিল ফ্যানে, মেঝেতে পড়েছিল ছোট বোনের

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: রংপুর নগরীর মধ্য গণেশপুর এলাকা থেকে দুই বোনের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার দুপুরে নিজ বাড়ি থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তারা সস্পর্কে চাচাতো বোন। একজন গণেশপুর এলাকার মোকছেদুল ইসলামের মেয়ে সুমাইয়া আক্তার মীম (১৬) এবং অন্যজন মমিনুল ইসলামের মেয়ে জান্নাতুল মাওয়া (১৪)।

এরমধ্যে সুমাইয়া আক্তার মীমের মরদেহ ঘরের ভেতর ফ্যানের সঙ্গে ঝুলানো অবস্থায় পাওয়া যায়। তার চাচাতো বোন জান্নাতুল মাওয়ার মরদেহ পাশের ঘরে মেঝের ওপর পড়েছিল।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার মমিনুল স্ত্রীসহ শ্বশুরবাড়ি কুড়িগ্রামের উলিপুরে চলে যান। বাড়িতে জান্নাতুল মাওয়া একা থাকার কারণে রাতে চাচাতো বোন সুমাইয়া এসে তাদের বাড়িতে থাকে। আজ দুপুর হয়ে গেলেও ঘরের দরজা বন্ধ থাকায় এলাকাবাসির সন্দেহ হয়। তারা পুলিশে খবর দিলে পুলিশ ঘরের তালা ভেঙে দুই বোনের মৃতদেহ দেখতে পায়। এসময় জান্নাতুল মাওয়ার গলায় ব্লেড দিয়ে কাটা এবং সুমাইয়ার লাশ ঘরের ফ্যানের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখা যায়।

রংপুর মেট্রোপলিটন কোতয়ালি থানার ওসি আব্দুর রশীদ বলেন, এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা এই মুহূর্তে বলা সম্ভব নয়। মরদেহ দুটির সুরতহাল তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। পাশাপাশি এর নেপথ্যে কী কারণ রয়েছে তা উদঘাটনে অনুসন্ধান শুরু হয়েছে। বিষয়টি পুলিশ গুরুত্ব সহকারে দেখছে বলেও জানান তিনি।

Advertisement