রেজিয়া চৌধুরীর মৃত্যুতে লন্ডনে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত

ব্রিটবাংলার নির্বাহী সম্পাদক,সাংবাদিক আহাদ চৌধুরী বাবু ও তাকওয়া ব্যাডমিন্টন ক্লাবের সেক্রেটারি ফারুক ফুয়াদ চৌধুরীর মাতা রেজিয়া খানম চৌধুরীর মৃত্যুতে ২৭ মার্চ বুধবার পূর্ব লন্ডনের ম্যানরপার্ক শাহজালাল মসজিদ সংলগ্ন একটি রেষ্টুরেন্টে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয় ৷

তাকওয়া ব্যাডমিন্টন ক্লাবের উদ্যোগে আয়োজিত মাহফিল ক্লাব সভাপতি ও বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব মোহাম্মদ আব্দুল মুনিম জাহেদী ক্যারল এর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে ব্যাখ্যা সহ তেলাওয়াত করেনগ্রসভেনোর হলের খতিব মাওলানা শাহ মুসাদ্দেক আলী ৷

জীবন মৃত্যু ও পিতা মাতার প্রতি সন্তানদের দায়িত্বের গুরুত্ব উপর আলোচনা পেশ করেন মাওলানা সামসুল আলম৷

আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন,লন্ডনে অবস্থনরত মরহুমার দুই ছেলে ব্রিটবাংলার নির্বাহী সম্পাদক ও লন্ডন বাংলা প্রেস ক্লাবের সদস্য আহাদ চৌধুরী বাবু, তাকওয়া ব্যাডমিন্টন ক্লাবের সেক্রেটারি ও রাইটলেন প্রপার্টি ডাইরেক্টর ফারুক ফুয়াদ চৌধুরী৷

তারা কান্না জড়িত কণ্ঠে তাদের মমতাময়ী মায়ের বিভিন্ন স্মৃতি চারণ করেন ৷

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন তাকওয়া ব্যাডমিন্টন ক্লাবের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল কাহার, ম্যানেজার সালেহ আহমেদ,
এসিস্টেন্ট সেক্রেটারি এস জুনেদ আহমেদ, ট্রেজারার মুহাজ্জেম আহমেদ রিবু,অ্যাসিস্ট্যান্ট ট্রেজারার আলতাফ হোসাইন, অ্যাসিস্ট্যান্ট স্পোর্টস সেক্রেটারি শাহ মুহাম্মদ মুসাদ্দিক আলী, মেম্বারশিপ সেক্রেটারি মোহাম্মদ ফয়সল ইসলাম, প্রেস এন্ড পাবলিসিটি সেক্রেটারি মনসুর আলী তাজ, নির্বাহী সদস্য : মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম,মোহাম্মদ মুন্না মিয়া,হাফেজ হুসেন আহমেদ, আব্দুল খালিক ও জামির উদ্দিন প্রমুখ

উল্লেখ্য সিলেট বিভাগ আন্দোলনের অন্যতম নেতা বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ মরহুম আলাউদ্দিন চৌধুরীর স্ত্রী ৷

ও সিলেটের প্রাক্তন ব্যাডমিন্টন খেলোয়াড় আশরাফ চৌধুরী হীরা ও সিলেটের বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ মরহুম সোয়েব চৌধুরীও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ৬নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম, সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস চৌধুরী রুহেল ও ব্রিটবাংলা২৪.কম এর নির্বাহী সম্পাদক আহাদ চৌধুরী বাবু,তাকওয়া ব্যাডমিন্টন ক্লাবের সেক্রেটারি ফারুক ফুয়াদ চৌধুরী, নাজনীন ইসলাম ও তোফায়েল চৌধুরীর মাতা,গত ১০ ই মার্চ ২০১৯ রোববার বাংলাদেশ সময় সকাল ৬টা ২২ মিনিটে সিলেট শহরের ইলাশকান্দিস্থ নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন।ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

তিনি দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত রোগে ভোগছিলেন।

মৃত্যুকালে উনার বয়স হয়েছিল ৮১ বছর।

মৃত্যুকালে তিনি ছয় ছেলে ও এক মেয়ে, নাতি-নাতনীসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

রোববার বাদ আসর খাসদবীর মদনী জামে মসজিদে মরহুমার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয় ।

পরে চৌকিদেখিস্থ হযরত নাসির উদ্দিন সিপাহ সালারের (রহ.) মাজার সংলগ্ন আদিনা গোরস্তানে তাকে দাফন করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement