মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে আর্থিক অনুদান বন্ধ করতে ব্রিটিশ সরকারের প্রতি এমপিদের চিঠি

ব্রিটবাংলা রিপোর্ট : রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা নিধন বন্ধ করতে সে দেশের সরকারের উপর চাপ সৃষ্টির জন্যে ব্রিটিশ ফরেন সেক্রেটারীর কাছে চিঠি লিখেছেন ১৫৭ জন ব্রিটিশ এমপি। হাউস অব কমন্সের প্রথম ব্রিটিশ বাংলাদেশী এমপি রুশানারা  আলী স্বাক্ষরিত ওই চিঠি সমর্থন করেছেন ১৫৬ জন এমপি। এমপি রুশানারা আলী অলপার্টি পার্লামেন্টারি গ্রুপ ফর ডেমোক্রেসি ইন বার্মার কো-চেয়ার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। চিঠিতে অপর দুই বাঙালী এমপি ডক্টর রূপা হক এবং টিউলিপ সিদ্দিকও স্বাক্ষর করেছেন।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তাণ্ডবে এক হাজারের বেশি মানুষ প্রাণ হারিয়েছে। তাদের মধ্যে মুসলিম রোহিঙ্গার সংখ্যাই বেশি।

শুক্রবার জাতিসংঘের মিয়ানমারবিষয়ক মানবাধিকার প্রতিনিধি ইয়াংহি লি বার্তা সংস্থা এএফপিকে এই তথ্য জানিয়েছেন। ওই কর্মকর্তা মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চিকে এ ব্যাপারে খোলামেলা আলোচনা করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর প্রশিক্ষণে ব্রিটিশ সরকার অর্থ সহযোগিতা দেয়। মিয়ানমার সেনা প্রশিক্ষনের সেই অর্থ সহযোগিতা বাতিল করে তা মানবাধিকার রক্ষার কাজে ব্যয় করার জন্যে সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিটিশ এমপিরা।

জাতিসংঘ বলেছে, গত দুই সপ্তাহে ২ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে। বাংলাদেশের শরণার্থীশিবিরগুলোতে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের থাকার মতো যথেষ্ট জায়গা হচ্ছে না।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সংঘর্ষের পর পালিয়ে আসার সময় অনেকে রোহিঙ্গাই নিহত হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী লোকজনের বরাত দিয়ে ইয়াংহি লি বলেছেন, ‘এর মধ্যে এক হাজার বা তারও বেশি লোক প্রাণ হারিয়েছে।’

বাংলাদেশ সর্বশেষ রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশ নিয়ে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছে। সীমান্তে শরণার্থীশিবিরে বাংলাদেশ ৬ লাখ ৭০ হাজার মিয়ানমারের নাগরিককে আশ্রয় দিয়েছে।

জাতিসংঘ বলেছে, রাতভর পালিয়ে আসার কারণে এর আগে অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাদের সংখ্যা গণনা করা হয়নি। এর আগে জাতিসংঘের হিসাবে অনুপ্রবেশকারী মানুষের সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৬৪ হাজার। কিন্তু জাতিসংঘ জানিয়েছে, গত বুধবার অন্তত ৩০০ নৌকায় করে মিয়ানমারের বিপুলসংখ্যক নাগরিক বাংলাদেশে প্রবেশ করায় এ সংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পায়।

নৌকায় সমুদ্র পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় প্রবল স্রোতে বিপুলসংখ্যক রোহিঙ্গা প্রাণ হারিয়েছে। তাদের বেশির ভাগ শিশু।

গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমার পুলিশের বেশ কয়েকটি তল্লাশিচৌকি এবং সেনাঘাঁটিতে হামলার অভিযোগে রাখাইনে সামরিক অভিযান শুরু করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনী। এতে অন্তত ৪০০ মানুষ নিহত হওয়ার কথা জানিয়েছে ক্ষমতাসীন সু চির সরকার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement