লন্ডনে ১ হাজারের বেশি বহুতল আবাসিক ভবন অগ্নিঝুঁকিতে

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : লন্ডনে ভয়াবহ গ্রেনফেল টাওয়ার ট্রাজেডির চার বছর পার হয়েছে। ভয়াবহ এই ঘটনার পর লন্ডনের অগ্নি ঝুঁকিপূর্ন বহুতল আবাসিক ভবনগুলো অগ্নি  নিরাপদ করার কথা থাকলেও এর বিপরীতে ভয়ঙ্কর তথ্য দিয়েছে লন্ডন ফায়ার ব্রিগেড। লন্ডনের অগ্নি নির্বাপক সংস্থাটি জানিয়েছে, লন্ডনে এখনো ১ হাজারের বেশি বহুতল আবাসিক ভবন বা বিল্ডিং ফায়ার সেফটি ঝুঁকিতে রয়েছে।

লন্ডন ফায়ার ব্রিগেড কমিশনার এন্ডি রো জানিয়েছেন, ব্রিগেডের পক্ষ থেকে লন্ডনে ১ হাজার ৬টি বহুতল আবাসিক ভবন বা বিল্ডিং চিহ্নিত করা হয়েছে, অগ্নিকান্ডের যে কোনো ঘটনা ঘটলে, সবাইকে এক সঙ্গে এসব ভবন থেকে বের হয়ে আসতে হবে। না হলে তাদের জীবন ঝুঁকিতে পড়বে। এ কারণে একে অগ্রহণযোগ্য দৃষ্টান্ত বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এদিকে গ্রেনফেল টাওয়ার ট্রাজেডির চার বছর পর এখনো লন্ডনে প্রায় ৭১৮টি বহুতল আবাসিক ভবন বা বিল্ডিং বিপজ্জনক ক্লাডিং যুক্ত রয়েছে। বহুতল ভবনে দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়ার কারণ হিসেবে ক্লাডিংকে বেশি দায়ি করা হয়। একই কারণে দ্রুত আগুন ছড়িয়ে পড়েছিল গ্রেনফেল টাওয়ারে।

লন্ডন মেয়র সাদিক খান এক প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন, গ্রেনফেল ট্রাজেডির লন্ডনে এখানো প্রায় ১ হাজার বহুতল আবাসিক ভবন বা বিল্ডিং অগ্নি ঝুঁকিতে রয়েছে যা গ্রহণযোগ্য নয়। তিনি বলেন, লন্ডনের প্রতিটি মানুষের নিরাপত্তার বিষয়টি আমি সব কিছুর আগে গুরুত্ব দেই। আমার মতো লন্ডনের ডেভোলাপার, ল্যান্ডলর্ড এবং ফ্রি হোল্ডারদেরও সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার বিষয়টি গুরুত্ব দেওয়া উচিত।

এক্ষেত্রে লিজহোল্ডারদের ব্যয় বহনে সহযোগিতার জন্য সরকারের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান লন্ডন মেয়র সাদিক খান।

 

Advertisement