শামীমা বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পাবে-আশা ব্রিটিশ হোম অফিসের : বাংলাদেশ দায়িত্ব নেবে না

ব্রিটবাংলা ডেস্ক : সিরিয়া রিফিউজি ক্যাম্প থেকে বৃটেনে ফেরার আগ্রহ প্রকাশের পর মঙ্গলবার শামীমার ব্রিটিশ নাগরিকত্ব বাতিল করে হোম অফিস। হোম অফিসের এই সংবাদ শুনে মারাত্মকভাবে মর্মাহত হয়েছেন শামীমা বেগম।
২০১৪ সালে মাত্র ১৫ বছর বয়সে আইএসে যোগ দিতে তুরস্ক হয়ে সিরিয়া পাড়ি জমিয়েছিলেন শামীমা বেগম। বুধবার পার্লামেন্টে শামীমার নাগরিকত্ব নিয়ে কথা বলেন হোম সেক্রেটারী সাজিদ জাভিদ। তিনি বলেছেন, ব্রিটেনের নিরাপত্তাকে প্রাধান্য দিয়েই শামীমার নাগরিকত্ব বাতিল করা হয়েছে।

https://britbangla24.com/news/71439

https://britbangla24.com/news/71070

ব্রিটিশ ন্যাশনালিটি এ্যাক্ট অনুযায়ী, কারো নাগরিত্ব কেড়ে নিতে হলে হোম অফিসকে অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যে সেটা সার্বিক জনগণের জন্যে মঙ্গলজনক। এছাড়া ওই ব্যক্তি মারাত্মকভাবে ইউকের স্বার্থ বিরোধী। একই সঙ্গে ঐ ব্যক্তি অন্য কোনো দেশের নাগরিকত্ব পাচ্ছে কি না সেটাও নিশ্চিত করতে হবে হোম অফিসকে। তবে হোম অফিসের বিশ্বাস, শামীমার মা বাংলাদেশী নাগরিক। সেই কারণে শামীমা বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পাবার সুযোগ পাবেন। তাই শামীমা নাগরিকত্বহীন থাকবে না বলেই দৃঢ় ধারণা হোম অফিসের। যদিও হোম অফিসের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আইনী লড়াইয়ের প্রস্তুতিও নিচ্ছে শামীমার পরিবার। তবে এ ধরনের যে কোনো আপিলে অন্তত বছরখানেক সময় লাগতে পারে। তাই এই সংকট সমাধান হওয়ার আগ পর্যন্ত তাকে নবজাতক শিশু নিয়ে সিরিয়ার রিফিউজি ক্যাম্পেই থাকতে হবে। যদিও শামীমা বলেছেন, তার স্বামীর মাধ্যমে ড্যাচ নাগরিকত্ব পাবার চেষ্টাও চালিয়ে যাবেন তিনি।

এদিকে বাংলাদেশ সরকার জানিয়েছে, শামীমা বেগমের নাগরিকত্বের বিষয়টি পুরোপুরি ব্রিটিশ সরকারের হাতে। এখানে বাংলাদেশের কিছুই করার নেই। শামীমার বাংলাদেশী পাসপোর্ট নেই। এমন কি তার দ্বৈত নাগরিকত্বও নেই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement