সরকার উৎখাতের ডাক ধর্মীয় সংগঠনের, কী বলছেন ইমরান?

ব্রিট বাংলা ডেস্ক :: ইমরান খানের অযোগ্য সরকারকে উৎখাত করতে আগামী ২৭ অক্টোবর থেকে ‘আজাদি মার্চ’ শুরু করার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির একটি ডানপন্থি ইসলামী সংগঠন। বৃহস্পতিবার সংগঠনটির প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান এ ঘোষণা দেন।

এ নিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) ও পাকিস্তান মুসলিম লীগের (পিএমএল-এন) নির্দেশে জামায়াত উলেমা-ই-ইসলাম প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমান সরকারের বিরুদ্ধে ধর্মকে পুঁজি করে রাজনীতি করতে পারবে না।

পাকিস্তানের তেহরিক-ই-ইনসাফ নেতারা টিভি শোতে বলেছেন, জামায়াত উলেমা-ই-ইসলামের ২৭ অক্টোবরে ডাকা ইসলামাবাদ অচল করার কর্মসূচিকে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ভয় পান না।

পাকিস্তানের প্রভাবশালী গণমাধ্যম ডনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর জানা আছে- পিপিপি এবং পিএমএল-এন এমন ভান করছে যে তারা ইসলামাবাদ অচলাবস্থায় অংগ্রহণ করছে না, কিন্তু উভয় দল মাওলানা ফজলকে সমর্থন। এমনকি তারা তাকে তাদের সরকারবিরোধী কর্মসূচির জন্য অর্থ সরবরাহ করছে।

প্রধানমন্ত্রী দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, মাওলানা ফজল মাদ্রাসার নিষ্পাপ শিশুদের সরকারের বিরুদ্ধে ব্যবহার করছেন।

কিন্তু তার বোঝা উচিত জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তান সরকারের জয় হয়েছে। তিনি ধর্মকে পুঁজি করে সরকারের কোনো ক্ষতি করতে পারবেন না।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, সরকার বিশ্বাস করে ধর্মীয় শিক্ষার্থীরা আমাদের সন্তান, কিন্তু তারা ফজলুর রহমানের মতো লোকের কারণে ভুলপথে পরিচালিত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, পিপিপি ও পিএমএল-এন ইসলামাবাদ অচলাবস্থায় সরাসরি অংশ নিচ্ছে না কারণ এ সরকারবিরোধী কর্মসূচি ব্যর্থ হলে এর দায় তাদের ওপর পড়বে না। পুরো দায় জামায়াত উলেমা-ই-ইসলামের ওপর তা বর্তাবে।

তিনি বলেন, মাওলানা ফজলুর রহমান পিপিপি ও পিএমএল-এন উভয়ের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে তাদের এজেন্ডা বাস্তবায়নে নেমেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement