১৮ বছরের কম বয়সীদের কাছে এসিড বিক্রিতে নিষেধাজ্ঞা আসছে : Sale of acids to under-18s to be banned, Amber Rudd says

ব্রিটবাংলা রিপোর্ট : ১৮ বছরের কম বয়সী যে কোন কাস্টমারের কাছে বৃটেনে এসিড বিক্রির উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের পরিকল্পনা করছে সরকার। মঙ্গলবার ম্যনচেষ্টারে দলীয় কনফারেন্সে এই ঘোষণা দিয়েছেন হোম সেক্রেটারী এম্বার রোড। এছাড়া সালফিউরিক এসিড বিক্রির পরিমান একেবারে সীমিত করার ঘোষণাও দেন তিনি।

এসিড সন্ত্রাস বন্ধের জন্যে নাইফ ক্রাইম প্রতিরোধের মতো সমান আইনের ঘোষণা দিয়েছেন হোম সেক্রেটারী। ১৮ বছরের কম বয়সী কেউ ছুরি বহন করলে তাকে সর্বোচ্চ ৪ বছরের জেলদন্ড এবং জরিমানার বিধান রয়েছে। এছাড়া ১৮ বছরের কম বয়সী কারো কাছে ছুরি বিক্রি করলে বিক্রেতাকে জরিমানা বা ৬ মাসের জেলদন্ডের বিধান রয়েছে। ১৮ বছরের কম বয়সীদের এসিড বহন বা তাদের কাছে এসিড বিক্রি ক্ষেত্রেও একই আইন করার পরিকল্পনা করছে সরকার।

ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলসের ৩৯টি পুলিশ ফোর্স  বাহিনীর তথ্য অনুযায়ী চলতি বছরের এপ্রিল থেকে গত ৬ মাসে ইংল্যান্ড এন্ড ওয়েলসে প্রায় ৪শ এসিড হামলার ঘটনা ঘটে। অন্যদিকে এনএইচএসের তথ্যানুযায়ী, ২০১১-১২ সালের পর থেকে প্রায় ৬২৪ জন এসিড হামলার রোগি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে ২০১৬-১৭ সালে ভর্তি হন ১০৯ জন। গত কয়েক মাসে এসিড হামলা ব্যাপকহারে বৃদ্ধির ফলে হোম সেক্রেটারী এম্বার রুড মঙ্গলবার পার্টি কনফারেন্সে েএসিড হামলা নিয়ন্ত্রণের জন্যে বিভিন্ন পরিকল্পনার ঘোষণা দেন।

শুধু এসিড হামলা প্রতিরোধের ব্যাপারেই নয়, ইন্টারনেট সন্ত্রাস প্রতিরোধেও কঠোর হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন হোম সেক্রেটারী। ইন্টারনেটে নাইফ ক্রয়-বিক্রয়ে কঠোর হয়েছে সরকার। অনলাইনে ছুরি কিনলেও তা হাতেহাতে ডেলিভারি দিতে হবে। এছাড়া অনলাইনে চাইল্ড এবিউস প্রতিরোধে অতিরিক্ত প্রায় ৫শ হাজার পাউন্ড বিনিয়োগের ঘোষণা দেন হোম সেক্রেটারী। তবে এক্ষেত্রে ইন্টারনেট সাপ্লায়ার কোম্পানী এবং সামাজিক মাধ্যমগুলোকে এ বিষয়ে আরো সচেতন হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। সামাজিক মাধ্যমে আপলোড করা চাইল্ড এবিউসের ছবি, জঙ্গী বা সন্ত্রাসবাদের ছবি ও ভিডিও সরিয়ে ফেলতে তাদের আরো সক্রিয় হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

অনলাইনে সন্ত্রাসী কার্যক্রমের ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগ প্রমাণিত হলে অভিযুক্তের সাজার মেয়াদ ১০ বছর থেকে বাড়িয়ে সর্বোচ্চ ১৫ বছর জেলদন্ডের ঘোষনাও দিয়েছেন হোম সেক্সেটারী এম্বার রুড।

Sale of acids to under-18s to be banned, Amber Rudd says

The government will ban the sale of acids to anyone under the age of 18, Home Secretary Amber Rudd has said.
Her pledge, at the Conservative Party conference, comes as more than 400 attacks using corrosive substances were recorded in the six months to April.
She also said she would “drastically limit” sales of sulphuric acid, given that it can be used to make explosives.
And Ms Rudd called on internet firms and social media platforms to “act now” and remove extremist content online.

The government said new laws to target people caught carrying acid would be modelled on current legislation around knife carrying, which carries a maximum of four years in prison, a fine, or both.
Plans to tackle the sale of corrosive substances would be similar to the law involving knives, which bans the sale to anyone under the age of 18 and carries a penalty of six months in prison, or a fine.
More than 400 acid or corrosive substance attacks were carried out in the six months to April this year, according to figures from 39 police forces in England and Wales.
According to NHS Digital data, there have been 624 admissions since 2011/12 because of an “assault by corrosive substance”. In 2016/17, there were 109 hospital admissions due to such attacks.
The home secretary also unveiled plans to make it harder for people under the age of 18 to buy knives online and announced a major investment in technology to help track down indecent images of children online and remove them quickly.
She announced more than £500,000 of investment in a “cutting-edge web crawler”, which experts say can process thousands of image hashes per second as a way of removing child abuse images.
Mrs Rudd told the conference there had been “an exponential surge in the volume of child sexual abuse referrals” and called on messaging service WhatsApp to help tackle the problem.
In another policy announcement, she also said people who repeatedly view extremist material online could face up to 15 years in prison.

She said extending prison sentence for those viewing extremist content online would close an important gap in the legislation, with tougher sentences only applying at the moment if people have downloaded or stored the material.
Ms Rudd told party activists in Manchester that security services had foiled seven terrorist plots this year.

 

 

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement