৪৭তম বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে আলোচনা সভা খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্যের

১৬ই ডিসেম্বর শনিবার রাত ৮ঘটিকায় ইস্ট লন্ডনস্থ আলহুদা সেন্টারে খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার উদ্যোগে মজলিসের ৪৭তম বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

যারা মুক্তি যুদ্ধে নেতৃত্ব দিয়েছেন এবং যারা যুদ্ধ করে শহীদ হয়েছেন তাঁদের কে শ্রদ্ধার সাথে স্বরণ করে তাঁদের আত্মার শান্তি কামনা করে বক্তব্য পেশ করেন, বিজয় দিবসের আলোচনা সভার প্রধান অতিথি, খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ইউরোপের তত্বাবধায়ক অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল কাদির সালেহ।

তিনি বলেন, পাকিস্তানের শোষকরা আমাদের উপর অত্যাচার নির্যাতন আর স্বৈরশাসনের রাজ্য নির্মান করেছিল। আমাদের ছিল না কোন বিশেষ মর্যাদা ছিলনা ইনসাফ ভিত্তিক কোন ন্যায় বিচার, শুধু ছিল নিপীড়ন আর নির্যাতন।

অধিকার, মর্যাদা ও ন্যায় বিচার জন্য মুক্তিযুদ্ধে সর্বস্তরের বীর সুর্য সৈনিকদের নয়মাসের যুদ্ধে, একসাগর রক্তের বিনিময়ে অর্জন হয়েছে স্বাধীন। আমাদের লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে অর্জন হয়েছে স্বাধীন বাংলাদেশ। পরিচয় পেয়েছে বিশ্বের মানচিত্রে, পুর্ব গগণে উদয় হয়েছে সবুজের বুকে এক লাল সুর্য।

৪৭তম বিজয় দিবসে সকল শহীদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে সকল বীর সৈনিক শ্রদ্ধার সাথে স্বরণ করে তিনি আর বলেন, আমাদের বীর সৈনিকরা মুক্তিযুদ্ধে এক সাগর রক্তের বিনিময়ে শুধু একটি স্বাধীন বাংলাদেশ এবং একটি পতাকা অর্জনের জন্য রক্ত দেয়নি।

যে কারণে আমাদের বীর শহীদ মুক্তিযুদ্ধারা রক্ত দিয়েছিলেন। যে কারণে আমাদের মা বোন ইজ্জত কে হারিয়ে দেশ কে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে বিশ্বের মানচিত্র স্থান করে দিয়েছিলেন, তাঁদের সেই স্বপ্ন এখনও বাস্থবায়ন হয়নি।

আজ স্বাধীন দেশে জনগণের নেই কোন নিরাপত্তা, নেই কোন ইনসাফ ভিত্তিক বিচার ব্যবস্থা। না আছে মর্যাদা বা ব্যক্তি স্বাধীনতা, আছে শুধু গুম খুন আর রাজনৈতিক প্রতিহিংসা। আজ স্বাধীন দেশে মায়ের পেটের বাচ্চাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। কলেজ ছাত্রী কে দিন দুপুরে মানুষের সামনে কুপানো হয়। কলেজ কাম্পাসে ছাত্র কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। নারীদের কে ইজ্জতহানী করে হত্যা করা হয়। আছে শুধু অবৈধ সম্পদের জন্য ডাকাতী আর দুর্নীতি। রাজনৈতিক প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রাণী আর আছে অবৈধ ভাবে দেশ শাসন।

স্বৈরশাসন থেকে মুক্তি, মানুষের নিরাপত্তা, নারীদের সমমান ও ইজ্জত, ইনসাফ ভিত্তিক ন্যায় বিচার তথা আইনের শাসনের জন্য আমাদের কে আবারও মুক্তির সংগ্রাম শুরু করতে হবে।

এ সংগ্রাম হবে মানুষের নিরাপত্তার সংগ্রাম, মানুষের মর্যাদার ও অধিকার রক্ষার সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতা সুরক্ষার সংগ্রামে সবাই ঐক্যবদ্ধ ভাবে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার সভাপতি মাওলানা সাদিকুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাওলানা শাহ মিজানুল হকের পরিচালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও ইউরোপের তত্বাবধায়ক অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল কাদির সালেহ।

এতে বক্তব্য রাখেন, খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য শাখার সহ সভাপতি মাওলানা শওকত আলী, সহ সভাপতি হাফিজ আবদুল কাদির, সহ সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আবদুল করীম, সহ সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আবদুল করিম উবায়েদ, বায়তুলমাল সম্পাদক মাওলানা তায়ীদুল ইসলাম, প্রশিক্ষন সম্পাদক মাওলানা মাহবুবুর রাহমান তালুকদার, অফিস ও প্রচার সম্পাদক সৈয়দ মারুফ আহমদ, লন্ডন মহানগরী সভাপতি হাফিজ মাওলানা এনামুল হক, ইউকের নির্বাহী সদস্য প্রফেসার আশাবুল হক, লন্ডন সিটির সেক্রেটারী মাওলানা আনিসুর রহমান,
নিউহাম শাখার সভাপতি মুহাম্মদ বুলবুল আহমাদ প্রমুখ।বিজ্ঞপ্তি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement