Rashan Charles death: Protesters throw fireworks at police : পুলিশের হাতে রাশানের প্রশ্নবিদ্ধ মৃত্যু নিয়ে হ্যাকনিতে দাঙ্গা

ব্রিটবাংলা রিপোর্ট : কৃষ্ণাঙ্গ ছেলে রাশান চার্লসের মৃত্যুকে কেন্দ্র করে শুক্রবার বিকাল থেকে শনিবার ভোররাত পর্যন্ত দাঙ্গা হয়েছে ইস্ট লন্ডনের হ্যাকনি কাউন্সিলে। প্রশ্নবিদ্ধ এই মৃত্যুর প্রতিবাদে শুক্রবার বিকাল ৪টার দিকে বিক্ষোভ শুরু হয় ডালস্টোন এলাকার কিংসল্যান্ড রোডে।

পুলিশের হাতে প্রশ্নবিদ্ধ মৃত্যুর প্রতিবাদ জানিয়ে বিভিন্ন বেনারের পাশাপাশি কেউ কেউ ‘ব্ল্যাক লাইফ ম্যাটার্স’ লিখা বেনার ফেস্টুন নিয়েও আসেন। রাত ৮টার দিকে ধীরে ধীরে বিক্ষোভ অগ্নিমূর্তি ধারণ করে বলে পুলিশ জানিয়েছে। কালো মুখোশধারী কিছু বিক্ষোভকারী রাস্তায় অসংখ্য বিন, ম্যাট্রেস ইত্যাদিতে  আগুন ধরিয়ে দেয়। রাত প্রায় সাড়ে ৮টার দিকে দাঙ্গা পুলিশ ধীরে ধীরে তাদের কাছে যাবার চেস্টা করলে পুলিশের উপর আক্রমণ শুরু হয়। এ সময় পুলিশকে উদ্দেশ্য করে ইট-পাটকেল, বোতল, আগুন বোমা নিক্ষেপ শুরু করে বলে পুলিশ জানায়। এ সময় মুখোশধারীরা স্থানীয় দোকানপাটও ভাংচুর করে বলে জানিয়েছে পুলিশ। রাত প্রায় ২টা ৪৫ মিনিটের দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে পুলিশ। এ সময় ১০ থেকে ১৫ টি দাঙ্গা পুলিশের ভেন সেখানে ছিল বলে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন। এছাড়াও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে পুলিশ ঘোড়া এবং হলিকপ্টারও ব্যবহার করে।

উল্লেখ্য ২০ বছর বয়সী রাশানকে ২২ জুলাই গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারের প্রায় এক ঘন্টা পর রয়েল লন্ডন হাসপাতালের মৃত্যুবরণ করে সে। তার প্রশ্নবিদ্ধ মৃত্যুর কারণ জানতে ওই দিন থেকেই বিক্ষোভ করে আসছেন স্থানীয়রা। তাড়া করে স্থানীয় দোকানের ভেতর গ্রেফতারের সময় হ্যান্ডকাফ পরা রাশানকে নিয়ে দু’জন পুলিশ অফিসার মাঠিতে পড়ে দস্তাদস্তি করছেন, এমন একটি সিসিটিভি ফুটেজ তাৎক্ষনিকভাবেই সামাজিক মাধ্যমে আসে। তবে পুলিশের ধাওয়ার মধ্যে রাশান কিছু একটা গিলার চেস্টা করছিল বলে দাবী পুলিশের। সেটা বের করার জন্যে তার গলায় অতিমাত্রায় চাপাচাপির কারনে মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে। যদিও দ্যা ইন্ডিপেনডেন্ট পুলিশ কমপ্লায়েন্স কমিশন রাশানের মৃত্যুর কারণ উদ্ধারে তদন্ত শুরু করেছে। এদিকে রাশানের পরিবার থেকে শান্তিপূর্ণ উপায়ে বিক্ষোভ প্রতিবাদ করতে সবার প্রতি আহ্বান জানান।

 

Rashan Charles death: Protesters throw fireworks at police

Fireworks and bottles were hurled at riot police and mattresses set on fire at a protest in Hackney, east London over the death of Rashan Charles.

The 20-year-old was chased by officers in the borough on 22 July.
He was apprehended in a shop and then tried to swallow an object but died later in hospital, the Met Police said.
Protesters gathered in Kingsland Road, Dalston, with some holding Black Lives Matter placards, before violence broke out at about 20:00 BST.

Police in Hackney tweeted: “Officers have been subjected to abuse and violence. Whatever the frustrations, this is patently not what the family of Rashan Charles wanted.”
The planned protest began on Friday at about 15:40.
By 20:00, dozens of people, some masked, were still lining the streets and shattered glass littered the road.
Bins, mattresses and debris were used to block the street and at one stage a lorry drove through the barricade with people clinging to it.
Bottles and fireworks were launched at riot police as they moved towards the crowd at about 22:00.

Videos on social media show officers walking backwards as objects are thrown at them.
Several wheelie bins were set alight and mattresses thrown on top of the burning pile.
Shop windows were also smashed, with those involved described by an eyewitness as “very, very angry”.
Pedestrians, motorcyclists and cyclists were told not to travel through the barricade.
The mood was said to have “calmed down” at about 22:45.
It is not yet known if there have been any arrests.

The Independent Police Complaints Commission, which is investigating the events that led to Mr Charles’s death, said “we understand the concerns raised following Rashan’s death.”
A statement added: “We will independently examine the circumstances of this incident, we will follow the evidence, we will consider whether there is an indication there may have been misconduct or criminality, and we will seek to answer the questions that Rashan’s family and the community of Hackney understandably have.” #Source#BBC#

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement