Tributes paid to London ‘honour killing’ muslim victim : লন্ডনে ‘অর্নার কিলিং’ এর শিকার মহিলার ছবি ও পরিচয় প্রকাশ

ব্রিটবাংলা রিপোর্ট : লন্ডনে সন্দেহভাজন ‘অর্নার কিলিং’ এর শিকার মহিলার পরিচয় প্রকাশ করেছে পুলিশ। নিহত ১৯ বছর বয়সী মহিলা মুসলিম। তার নাম সেলিন দোখরান। গত ১৯ জুলাই, বুধবার কেনসিংটনের পশ্চিম কোম্বে লেনের একটি বাড়ির ফ্রিজের ভেতর থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। তাকে অপহরনের পর হত্যার আগে ধর্ষন করা হয়। তার ঘাঢ়ে মারাত্মক ছুরিকাঘাতের ফলে তার মৃত্যু হয় বলে ময়না তদন্ত রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।

পূর্বের নিউজের লিঙ্ক

Two man charged for ‘honour killing’ in London : লন্ডনে ‘অনার কিলিং’ দুজন অভিযুক্ত

সেলিন দোখরান ভারতীয় অরিজিন মুসলিম। ১৯৯৬ সালে ওয়ান্ডসওয়ার্থে জন্ম হয়েছে। বড় হয়েছেন সাউথ লন্ডনে। ম্যাকআপ এবং কসমেটিক এডভাইসার ছিলেন তিনি। আরবীয়ান মুসলিম এক ছেলের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের জেড়ে তাকে অপহরন এবং ধর্ষনের পর হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

সেলিন দোখরানকে অপহরন, ধর্ষন এবং হত্যার দায়ে ৩৩ বছর বয়সী মোজাহিদ আর্শিদকে অভিযুক্ত করেছে পুলিশ। ২০ বছর বয়সী আরেক মহিলাকে অপহরন এবং ধর্ষন চেস্টার অভিযোগও আছে তার উপর। মোজাহিদের নির্ধারিত ঠিকানা পায়নি পুলিশ। এই দু’ মহিলাকে অপহরণের অভিযোগে অভিযুক্ত আটক অপর ব্যক্তির নাম ভিনসেন্ট তাপ্পু। তার বয়স ২৮ বছর। সে ওয়েস্ট লন্ডনের এ্যাক্টনের বাসিন্দা।

তাদেরকে ২৬শে জুলাই ওল্ডবেইলি কোর্টে তোলার কথা রয়েছে।  একই কোর্টে আগামি ২১ শে আগস্ট আবার তাদের হাজির করা হবে।

Celine Dookhran killing: Tributes paid to ‘beautiful girl’

Tributes have been paid to a 19-year-old woman who was allegedly kidnapped and raped before being killed.
Celine Dookhran’s body was found at an address in Coombe Lane West, in Kingston Upon Thames, on Wednesday.
Prosecutors allege Mujahid Arshid, 33, murdered the teenager – who was of Indian Muslim heritage – for being in a relationship with an Arab Muslim.
One user on Facebook said: “RIP Celine. Such a beautiful, intelligent soul.”
Ms Dookhran, who was born in Wandsworth in 1996 and grew up in south London, had a passion for make-up and offered cosmetic advice to her followers on social media.
Her social media messages included posts about religious holidays and fasting during Ramadan.

Mr Arshid is also accused of the kidnap, rape and attempted murder of a woman in her 20s.
The second woman, who cannot be identified for legal reasons, had earlier been treated for stab or slash wounds at a south London hospital.
Vincent Tappu, 28, from Acton, west London, is also charged with kidnapping both women.
A post-mortem examination revealed the cause of Ms Dookhran’s death was a neck wound.

The men have been remanded in custody.
Mr Arshid, of no fixed address, is scheduled to appear at the Old Bailey on 26 July.
Both defendants will appear at the same court on 21 August.#Source#BBC#

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement