ব্রিটেনের বাইরে আয় এবং সম্পদ নিয়ে হেইচএমআরসির নতুন নিয়ম,সচেতনতা বৃদ্ধিতে ইউকে বিসিসিআইয়ের বিশেষ সেমিনার অনুষ্ঠিত  

ব্রিটেনের বাইরে আয় এবং সম্পদ নিয়ে হেইচএমআরসির নতুন নিয়ম।
সচেতনতা বৃদ্ধিতে ইউকে বিসিসিআইয়ের বিশেষ সেমিনার অনুষ্ঠিত।

রিকুয়ারমন্টে টু কারেক্ট সংক্ষেপে আরটিসি।

ব্রিটেনে বসবাসরত নাগরিকদের বিদেশে থাকা সম্পদ এবং আয় দেখানোর সুযোগ দিয়ে আরটিসির আওতায় হেইচএমআরসির নতুন নিয়ম।

যার শেষ সময় ছিল ৩০ শে সেপ্টেম্বও ২০১৮।
আয়কর, সম্পদ এবং সম্পদের লাভের হিসাব দেখানোর নির্দেশ দিয়ে এ আইন প্রণয়ন করা হয়।
তবে এ বিষয়ে দুশ্চিন্তা না করে সঠিক নির্দেশনার জন্য টেক্স এক্সপার্টদের সাথে কথা বলে যে কোন সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধিত্বকারী অন্যতম সংগঠন ইউকেবিসিসিআই নেতৃবৃন্দ।

গত বৃহস্পতিবার এ বিষয়ক এক সেমিনারের আয়োজন করে সংগঠনটি।

ইচ্ছাকৃত বা অনিচ্ছাকৃতভাবে কেউ এ সুযোগ হারালে হেইচএমআরসি কি ব্যবস্থা নিচ্ছে তা অনেকের কাছেই অজানা।বিশেষ করে ব্রিটিশ বাংলাদেশী কমিউনিটির কাছে এ বিষয়টি তুলে ধরার জন্য ইউকেবিসিসিআই এ সেমিনারের আয়োজন করে এমনটি জানান সংগঠনের প্রেসিডেন্ট বজলুর রশিদ এমবিই।
প্রেসিডেন্ট আরো বলেন এ হিসাব খুব একটা জটিল যে তা নয়।তবে কোন চালাকি করে এ ফাদে না পরার পরামর্শ দেয়া হয় সেমিনার থেকে।

তাছাড়া ব্রিটেনের নাগরিকদের কার কোথায় কি আছে সে তথ্য জানার জন্য ১০০ টি দেশের সাথে চুক্তি হয় হেএইচএমআরসির।তবে বাংলাদেশ এ তালিকায় না থাকায় বাড়তি সুবিধায় আছেন ব্রিটিশ বাংলাদেশীরা।

এতে উপস্থিত ছিলেন কায়ছার এন্ড এসোসিয়েটসের ট্যাক্স এক্সপার্ট আজম বাক্কুস।

তিনি আরটি সম্পর্কে বিস্তারিত তুলে ধরেন।সম্পদের হিসাব দেখানোর গাফিলাতির কারণে আরটিসির নিয়মের আওতায় চার বছর, ছয় বছর এবং ২০ বছরের পেছনে গিয়েও হেএইচএমআরসি অনুসন্ধান চালাতে পারে বলেও জানান তিনি ।
সংগঠনের প্রেসিডেন্ট বজলুর রশিদ এমবিইর সভাপতিত্বে ডাইরেক্টর ফর লিগ্যাল এ্যাফেয়ার্স আনোয়ার বাবুলের পরিচালনায় এতে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হাইকমিশনের কমার্সিয়াল কাউন্সেলর এস.এম জাকারিয়া হক।

তিনি ইউকেবিসিসিআইয়ের এ উদ্যোগে ভূয়সি প্রশংসা করেন।

তিনি বলেন এটি একটি সময় উপযোগী উদ্যোগ।
এতে আরো উপস্থিত ছিলেন ইউকেবিসিসিআই ডাইরেক্টর জামাল উদ্দিন মকদ্দুস,এম.এ গণি, ডাইরেক্টর ফর ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড এ্যাফেয়াস রহিমা মিয়া, সিদ্দিকুর রহমান জয়নাল, নাজমুল নুরু,হারুন মিয়া, অলি খান।

ইউকেবিসিসিআই মেম্বারদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এম.এ মতিন, মুনিম ছালিক।আরো উপস্থিত ছিলেন সাউথ ইস্ট ব্যাংকের ডাইরেক্টর আকিকুর রহমান, বিসিএ যুগ্ম সম্পাদক মিটু চৌধুরী, এসএসবিএ থেকে আজিজ চৌধুরী সহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
Advertisement